বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২১, ১২:২৯:২৯

কেরালায় প্রবল বৃষ্টি-ভূমিধসে নিহত বেড়ে ১৮

কেরালায় প্রবল বৃষ্টি-ভূমিধসে নিহত বেড়ে ১৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:- ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কেরালায় প্রবল বৃষ্টিতে সৃষ্ট ভূমিধসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৮ জনে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া এখনও কয়েক ডজন মানুষ নিখোঁজ রয়েছেন। রাজ্যের কোট্টায়াম জেলার কুট্টিকাল ও ইদুক্কিতে হতাহতের এই ঘটনা ঘটেছে। এর আগে শনিবার প্রবল বৃষ্টিপাত ও ভূমিধসে নিহতের সংখ্যা ৫ জন বলে জানানো হয়েছিল। এছাড়া মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন স্থানীয় কর্মকর্তারা। এদিকে রবিবার এক প্রতিবেদনে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, প্রবল বৃষ্টিপাত ও ভূমিধসে প্রাণহানির ঘটনার পর বিদ্যমান পরিস্থিতিতে কেরালার সবরিমালা মন্দিরে ভক্তদের না যেতে অনুরোধ করেছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। রবিবার ও সোমবারের জন্য এই নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া নিখোঁজ ব্যক্তিসহ দুর্যোগপীড়িত ভুক্তভোগীদের উদ্ধারের কাজ চলছে বলেও জানিয়েছে সংবাদমাধ্যমটি। হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, ভারী বৃষ্টিপাতের জেরে ১৮ জনের মৃত্যুর পর বিদ্যমান পরিস্থিতিতে নিখোঁজদের উদ্ধারে কেরালায় ভারতীয় সেনাবাহিনী ও বিমানবাহিনীর সদস্যরা পূর্ণ শক্তি নিয়ে উদ্ধারকাজে অংশ নিয়েছে। রাজ্যটির বহু জায়গা জলমগ্ন হয়ে রয়েছে। এছাড়া মধ্য কেরালার অনেক জায়গায় প্রবল বৃষ্টির জেরে ভূমিধস দেখা দিয়েছে। এদিকে অতিবৃষ্টির কারণে রাজ্যের অনেক নদীর পানিই বইছে বিপদসীমার ওপর দিয়ে। ভারতের আবহাওয়া বিভাগ (আইএমডি) পাঠানমথিট্টা, কোট্টায়াম, এর্নাকুলাম, ইদুক্কি এবং ত্রিশূর জেলার জন্য ‘রেড অ্যালার্ট’ জারি করেছে। এ ছাড়া, তিরুবনন্তপুরম, কোল্লাম, আলাপুঝা, পালাক্কাড, মালাপ্পুরম, কোঝিকোড় এবং ওয়ানাড জেলাতে অরেঞ্জ অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। মূলত আরব সাগরে একটি নিম্নচাপ তৈরি হওয়ার কারণেই এই ভারী বৃষ্টিপাত। দক্ষিণ ও মধ্য কেরালায় এখনও ভারী বৃষ্টি হচ্ছে। এছাড়াও রাজ্যটির উত্তরাঞ্চলীয় জেলায় আজও ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, কেরালার রাস্তায় পানিতে আটকা পড়েছে একটি বাস। এ সময় বাসের জানালা দিয়ে যাত্রীদের বেরিয়ে আসতে দেখা যায়। রাজ্য সরকারের অনুরোধের পর সেনা ও বিমানবাহিনীর সদস্যরা উদ্ধার কার্যক্রম পরিচালনায় এগিয়ে এসেছেন। রাজ্যে জরুরি প্রয়োজনে ব্যবহারের জন্য সামরিক হেলিকপ্টার প্রস্তুত এবং দক্ষিণাঞ্চলীয় এয়ার কমান্ডকে সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে। ইতোমধ্যে রাজ্যের বন্যা কবলিত-এলাকায় সেনাবাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে। রাজ্যের প্যানগোদ সামরিক স্টেশন থেকে কানজিরাপ্পালিনের কোট্টায়াম জেলায় সেনাবাহিনী ৩০ সদস্যের একটি ইউনিট পাঠানো হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?