সোমবার, ১৬ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ০৮ আগস্ট, ২০১৭, ০৭:২০:০৭

টাঙ্গাইলে রাজন হত্যায় ১২ জনের মৃত্যুদণ্ড

টাঙ্গাইলে রাজন হত্যায় ১২ জনের মৃত্যুদণ্ড

ডেস্ক রির্পোটঃ-টাঙ্গাইলের ভুঞাপুরে কলেজছাত্র রাজন হত্যা মামলার রায়ে ১২ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন টাঙ্গাইল স্পেশাল জজ আদালত। মঙ্গলবার (৮ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জনাকীর্ণ আদালতে টাঙ্গাইলের স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক ওয়াহিদুজ্জামান সিকদার এই রায় ঘোষণা করেন। দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে ৮ জনের উপস্থিতিতেই বিচারকার্য সম্পন্ন হয়। বাকি চারজন আসামি পলাতক রয়েছেন।
দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন-সাইদুল, মোমিন, নিজাম, আবু বক্কর, হানু, সিরাজ, ওহাব। পলাতক চারজন হলেন-মজিদ, আবদুল মজিদ, মজনু ও নুরুল ইসলাম।
মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, ২০১৪ সালের ১৩ এপ্রিল ভুঞাপুর উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের ভালকুটিয়া গ্রামের তার নিজ বাড়িতে জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে পূর্বপরিকল্পিতভাবে দণ্ডপ্রাপ্তরা হামলা চালিয়ে লোহার রড ও শাবল দিয়ে মাথায় আঘাত করে রাজনকে মারাত্মক আহত করে। পরে তাকে আহত অবস্থায় ভুঞাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে সেখান থেকে তাকে ঢাকায় রেফার করা হয়। ঢাকায় নেওয়ার পথে রাজনের মৃত্যু হয়। পরদিন এ ঘটনায় তার বাবা লাল মিয়া সরকার বাদী হয়ে ভুঞাপুর থানায় ১৮ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। ভুঞাপুর থানার তদন্ত কর্মকর্তা আবু ওবায়দা ছয়জন আসামিকে বাদ দিয়ে ১২ জনের নামে চার্জশিট দাখিল করেন। পুলিশ আটজনকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠান।
রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট মুলতান উদ্দিন, আসামিপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট শামীমুল আক্তার।

এই বিভাগের আরও খবর

  অরফানেজ ট্রাস্ট মামলা: খালেদা জিয়ার আপিল শুনানি বৃহস্পতিবার

  খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি ৩১ জুলাই

  চ্যারিটেবল মামলায় ১৭ জুলাই পর্যন্ত খালেদা জিয়ার জামিন

  নিজেদের ভুল ঢাকতে ধর্মঘট ডাকা অন্যায়-হাইকোর্ট

  অরফানেজ ট্রাস্ট মামলাঃ খালেদা জিয়ার আপিল শুনানি পেছালো

  দুই মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন নামঞ্জুর

  খালেদা জিয়ার আপিল শুনানি ৮ জুলাই

  নড়াইলে বেগম জিয়ার জামিন আবেদন শুনানী শেষ, আদেশ ১৭ জুলাই

  কুমিল্লার এক মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিতই থাকছে

  সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনা মানছেন না নিম্ন আদালতের বিচারকরা

  খালেদা জিয়ার সাজা বাড়ানোর আবেদনের শুনানি মঙ্গলবার

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?