শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
SHARE

শনিবার, ০৩ আগস্ট, ২০১৯, ০২:০৩:১১

মশা মারার ওষুধ সিটি করপোরেশনকে আনতে হবে-হাইকোর্ট

মশা মারার ওষুধ সিটি করপোরেশনকে আনতে হবে-হাইকোর্ট

ডেস্ক রিপোর্টঃ-অ্যাডিস মশা নির্মূলে দেশের বাইরে থেকে কার্যকর ওষুধ আনতে বলেছে হাইকোর্ট। এমন আদেশ দিয়ে আদালত বলেছে, বিশেষ ব্যবস্থায় দুই সিটি করপোরেশনকে দিয়ে উন্নতমানের ওষুধ আমদানি করতে হবে। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে এ নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে সংকট মোকাবেলায় সম্ভব হলে সরকারকে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ওষুধ আমদানি করে দুই সিটি করপোরেশনসহ সকল সিটি করপোরেশন ও পৌরসভায় দেশব্যাপী সরবরাহ করতে বলা হয়েছে।
বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ার্দীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ গত বৃহস্পতিবার এই আদেশ দেন। সিটি করপোরেশনের আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে আদালত বলেন, ওষুধ আনতে সিটি করপোরেশনের ব্যর্থ হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। কারণ সরকার বলেছে ওষুধ সিটি করপোরেশনকেই আনতে হবে। অতএব সকল দায়-দায়িত্ব সিটি করপোরেশনের।
এর আগে দেশের বাইরে থেকে ওষুধ আনা নিয়ে সিটি করপোরেশন ও রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা আদালতে পরস্পরবিরোধী বক্তব্য দেন। ঐ বক্তব্যের প্রেক্ষিতে হাইকোর্টের অনুরোধে স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মোহাম্মদ হেলালুদ্দীন আহমেদ উপস্থিত হয়ে আদালতকে জানান, বিদেশে সরকারিভাবে মশা নির্মূলের ওষুধ উত্পাদন হয় না। বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো এর উত্পাদন করে থাকে। ফলে জি-টু-জি পদ্ধতিতে দ্রুত ওষুধ আমদানিতে জটিলতা রয়েছে। আইন অনুসরণ করে সিটি করপোরেশন এই ওষুধ আনবে।
১৪ কার্যদিবসের মধ্যে ওষুধ আসতে পারে
ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের আইনজীবী তৌফিক ইনাম টিপু বলেন, মশা নিধনে যে ওষুধ নির্ধারণ করা হয়েছে সেটার স্যাম্পল চায়না থেকে ডিএইচএল কুরিয়ারে ঢাকায় আসবে। মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর কিনা সেই পরীক্ষা সম্পন্নের পর ওষুধ আসতে ১৪ কার্যদিবস লাগতে পারে। আদালত বলেন, নতুন ওষুধ লাগবে।
হাসপাতালে সার্বক্ষণিক চিকিৎসক রাখার নির্দেশ
ঢাকার সব সরকারি হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের চিকিত্সা তত্ত্বাবধান করতে সহযোগী অধ্যাপকের নীচে নয় এমন একজন চিকিত্সককে সার্বক্ষণিক দায়িত্বে নিয়োজিত রাখতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বেসরকারি হাসপাতালগুলোকেও মানবিক দিক বিবেচনা করে যতটুকু সম্ভব এই আদেশ বাস্তবায়ন করতে বলেছে আদালত। একইসঙ্গে ডেঙ্গু চিকিত্সার জন্য হাসপাতালগুলোতে পর্যাপ্ত বেডের ব্যবস্থা রাখতে বলা হয়েছে। আদালত বলেন, একজন রোগীও যেন বিনা চিকিত্সায় ফিরে না যায় তা নিশ্চিত করতে হবে।
আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল কাজী মাঈনুল হাসান, দক্ষিণ সিটির পক্ষে সাঈদ আহমেদ রাজা ও উত্তর সিটির পক্ষে তৌফিক ইমাম টিপু শুনানি করেন।

এই বিভাগের আরও খবর

  রিফাত হত্যা: পলাতক ৯ আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি

  এজাহার বদলে দিলেন ওসি, বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ

  তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

  এ মাসেই নুসরাত হত্যা মামলার নিষ্পত্তিঃ বিচার বিলম্বের চেষ্টা, অভিযোগ বাদী ও রাষ্ট্রপক্ষের

  সাঁওতাল হত্যা মামলার চার্জশিটের বিরুদ্ধে নারাজি পিটিশন, শুনানি ৪ নভেম্বর

  তাহেরীর বিরুদ্ধে মামলার আবেদন খারিজ

  জামিনে মুক্তি, অ্যাম্বুলেন্সযোগে বাসায় গেলেন মিন্নি

  মিন্নির জামিন বহাল, মুক্তিতে বাধা নেই

  ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে তাহেরীর বিরুদ্ধে মামলা

  দুদকের মামলায় লতিফ সিদ্দিকীর জামিন নামঞ্জুর

  আদালত কক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি প্রদর্শনে নির্দেশ হাইকোর্টের

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?