বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ২৬ মে, ২০১৯, ০৮:৫৫:৫৫

খালেদা জিয়ার গ্রেপ্তারি পরোয়ানা সংক্রান্ত প্রতিবেদন ৩০ জুন

খালেদা জিয়ার গ্রেপ্তারি পরোয়ানা সংক্রান্ত প্রতিবেদন ৩০ জুন

ডেস্ক রিপোর্টঃ-উস্কানিমূলক বক্তব্যের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মধ্যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করাসহ ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার গ্রেপ্তারি পরোয়ানা তামিল সংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ আগামী ৩০ জুন ধার্য করেছে আদালত।
রবিবার মামলাটি খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার সংক্রান্ত তামিল প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন গুলশান থানা পুলিশ প্রতিবেদন দাখিল করতে পারেনি। এ জন্য ঢাকা মহানগর হাকিম জিয়াউর রহমান আগামী ৩০ জুন গ্রেপ্তার সংক্রান্ত তামিল প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ ঠিক করেন।
এ নিয়ে গ্রেপ্তার সংক্রান্ত তামিল প্রতিবেদন দাখিলের জন্য গুলশান থানা পুলিশ ৫ বার সময় নিয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্ট আদালতের পেশকার রাকিব চৌধুরী।
মামলার আরজিতে বলা হয়, রাজধানীর শাহবাগ থানার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে ২০১৪ সালের ১৪ অক্টোবর বিকালে হিন্দু সমপ্রদায়ের শুভ বিজয়ার অনুষ্ঠানে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে বেগম খালেদা জিয়া সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের মাধ্যমে দেশে সামপ্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির চেষ্টা করেছেন। ইচ্ছাকৃতভাবে খালেদা জিয়া সব ধর্মের মানুষের অনুভূতিতে কঠোর আঘাত করেছেন মর্মে বাদী অভিযোগ করেন।

এই বিভাগের আরও খবর

  রিফাত হত্যা: পলাতক ৯ আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি

  এজাহার বদলে দিলেন ওসি, বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ

  তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

  এ মাসেই নুসরাত হত্যা মামলার নিষ্পত্তিঃ বিচার বিলম্বের চেষ্টা, অভিযোগ বাদী ও রাষ্ট্রপক্ষের

  সাঁওতাল হত্যা মামলার চার্জশিটের বিরুদ্ধে নারাজি পিটিশন, শুনানি ৪ নভেম্বর

  তাহেরীর বিরুদ্ধে মামলার আবেদন খারিজ

  জামিনে মুক্তি, অ্যাম্বুলেন্সযোগে বাসায় গেলেন মিন্নি

  মিন্নির জামিন বহাল, মুক্তিতে বাধা নেই

  ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে তাহেরীর বিরুদ্ধে মামলা

  দুদকের মামলায় লতিফ সিদ্দিকীর জামিন নামঞ্জুর

  আদালত কক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি প্রদর্শনে নির্দেশ হাইকোর্টের

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তির প্রেক্ষাপটে আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক মাহমুদুর রহমান বলছেন, মৃত্যুর ঘটনাগুলো ‘রিভিউ’ করার কোনো প্রয়োজন নেই, চিকিৎসকদের কথাই যথেষ্ট। আপনি কি তাকে সমর্থন করেন?