মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ, ২০১৯, ০৬:৫৯:৩৫

খালেদা জিয়ার ১১ মামলায় শুনানি ১৬ এপ্রিল

খালেদা জিয়ার ১১ মামলায় শুনানি ১৬ এপ্রিল

ডেস্ক রিপোর্টঃ-বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে থাকা রাষ্ট্রদ্রোহসহ ১১ মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি পিছিয়ে আগামী ১৬ এপ্রিল দিন ধার্য করেছে আদালত।
সোমবার পুরান ঢাকার বকশিবাজারের অস্থায়ী আদালতে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক কেএম ইমরুল কায়েস সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে নতুন এ তারিখ ঠিক করেন।
আজ ১১ মামলার মধ্যে একটি মামলার অভিযোগপত্র গ্রহণের জন্য ও বাকি ১০ মামলা অভিযোগ গঠন বিষয়ে শুনানির জন্য দিন ধার্য ছিল।
মামলাগুলো হাইকোর্টে স্থগিত আছে জানিয়ে সময়ের আবেদন করেন তার আইনজীবীরা। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি একই আদালত একই কারণে সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে ৪ মার্চ অভিযোগ গঠনের শুনানির জন্য দিন ধার্য করেছিলেন। ঢাকার মহানগর দায়রা জজ কেএম ইমরুল কায়েস মামলাগুলির ওপর শুনানি শেষে নতুন এ তারিখ ধার্য করেন।
মামলাগুলোর মধ্যে রয়েছে রাজধানীর দারুস সালাম থানার নাশকতার ৮টি, যাত্রাবাড়ী থানার ২টি ও রাষ্ট্রদ্রোহের ১টি মামলা।
১১ মামলার মধ্যে যাত্রাবাড়ী থানার একটি হত্যা মামলায় অভিযোগপত্র গ্রহণের বিষয়ে শুনানির জন্য দিন ধার্য ছিল। অপর ১০ মামলা ছিল অভিযোগ গঠনের বিষয়ে শুনানির জন্য।
প্রসঙ্গত, মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যে করার অভিযোগে গত বছর ২৫ জানুয়ারি আদালতে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলাটি দায়ের করা হয়।

এই বিভাগের আরও খবর

  মিন্নির জবানবন্দি প্রত্যাহার ও চিকিৎসার আবেদন নামঞ্জুর

  রিফাত হত্যাঃ স্ত্রী মিন্নির জামিন আবেদন নামঞ্জুর

  ‘প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলার প্রস্তুতি সম্পন্ন’

  রিফাত হত্যা মামলাট অবশেষে আইনজীবী পেলেন মিন্নি

  রিফাত হত্যা মামলা: স্ত্রী মিন্নি ৫ দিনের রিমান্ডে

  ১১ কোম্পানির দুধে পাওয়া গেছে সীসা

  শেখ হাসিনার ট্রেনে হামলায় সাজাপ্রাপ্ত ৮ জনের আত্মসমর্পণ, জেলহাজতে প্রেরণ

  ডিআইজি মিজানকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদ করবে দুদক

  ঘুষের মামলায় জামিন পেলেন হুদা দম্পত্তি

  মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় ফিরোজ খাঁ’র রায় যেকোনো দিন

  নুসরাতের শ্লীলতাহানির মামলাও নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

এলডিপি সভাপতি অলি আহমদ বলেছেন, বাংলাদেশে এখন টাকা থাকলে সব রকম অন্যায় করে পার পাওয়া যায়। আপনি কি তা ঠিক মনে করেন?