বুধবার, ২৩ জানুয়ারী ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ০৮ অক্টোবর, ২০১৮, ০৭:৪৭:৪০

জাতীয় মহিলা কাবাডি দলে জুরাছড়ির চার কিশোরী তাদের চোখে দেশজয়ের স্বপ্ন

জাতীয় মহিলা কাবাডি দলে জুরাছড়ির চার কিশোরী তাদের চোখে দেশজয়ের স্বপ্ন

সুমন্ত চাকমা, জুরাছড়িঃ-কেউ যখন খেলা শুরু করে, তখন তার একটা স্বপ্ন থাকে। আমি সব সময়ই সেরা হতে চাইতাম। তাই আমি স্বপ্ন দেখতাম সেরা হওয়ারই, এটাই স্বাভাবিক। পরম করুনাময়কে ধন্যবাদ এই পর্যয়ে নিয়ে আসার জন্য। এখানে আসার জন্য আমি অনেক কষ্ট করেছি। বারবার নিজের সামর্থ্যরে সীমানাটাকে ঠেলতে চেয়েছি আর নিজের ওপর আস্থা রেখেছি। এমনকি কঠিন সময়েও। এত দূর যে আসতে পেরেছি, এ জন্য স্কুলের প্রধান শিক্ষক শান্তিময় স্যারকে কৃতজ্ঞতা জানাই। যেহেতু তার উৎসাহ ও সহযোগীতা ছাড়া  জাতীয় দলে খেলার সুযোগ পাওয়া কোন অবস্থায় সম্ভব ছিলনা।
সম্প্রতি জাতীয় মহিলা কাবাডি দলে জায়গা পাওয়া রাঙামাটি জুরাছড়ি উপজেলার ভুবন জয় সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের চার শিক্ষার্থী এসব কথা বলেন। তারা হল- দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী বেবী চাকমা, একই শ্রেণীর নিরতী চাকমা, সুচরিতা চাকমা এবং একাদশ শ্রেণী প্রথম বর্ষের মেয়েবী চাকমা। সোমবার বিদ্যালয়ের মাঠে শহীদ মিনারে বসে কথা হয় তাদের সাথে। তারা তাদের স্বপ্নে কথা জানান।
বেবী চাকমার মধ্যবৃত্ত পরিবারের সন্তান। বাবা প্রভাত চাকমা, মা লতিকা চাকমা। ১নং জুরাছড়ি ইউনিয়নের কুসুমছড়ির এক গুচ্ছ গ্রামে তাদের বাস। বেবী চাকমা জাতীয় মহিলা কাবাডি দলে অন্তভুক্ত হওয়াই তারা ও গ্রামের মানুষ অনেক খুশি।
একই ইউনিয়নের যক্ষা বাজারের হরিলাল চাকমার মেয়ে সুচরিতা চাকমা জাতীয় দলের কাবাডি খেলতে যাবে শুনে বাজার জুড়ে আনন্দ বিরাজ করছে। একই ইউনিয়নের ডেবাছড়ার মেয়েবী চাকমার পিতা-মাতাও চাই তাদের মেয়ে দেশের জন্য কাজ করুক। তারা বেশ খুশি।
বনযোগীছড়া ইউনিয়নের নিরতা চাকমা। বাবা হরিচন্দ্র চাকমা, মা সুমিত্রা চাকমা মেয়ে দেশের উচ্চ পর্যয়ে কাবাডি দলের পক্ষে খেলার সুযোগ পেয়েছে বিশ্বাস করতে পারছে না। তারা চাই দেশে ও এলাকার সুনাম রক্ষায় তাদের মেয়ে নিরলস ভাবে খেলে বিজয় অর্জন আনুক।
বেবী চাকমা, নিরতী চাকমা, সুচরিতা চাকমা এবং মেয়েবী চাকমা জানান, কাবাডিতেই ক্যারিয়া শুরু ও শেষ করতে চাই। দেশে পিছিয়ে পরা নারীদের কাবাডি খেলায় এগিয়ে নিতে সেরা কোচ হতে চাই তারা।
ভুবন জয় সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শান্তি ময় চাকমা জানান, গত ২০১৭ সালে রাঙামাটি জেলার জুরাছড়ি মহিলা কাবাডি জাতীয় পর্যায় খেলায় রানাআর্প অর্জন করেছি। সে সময় জাতীয় কাবাডি ফেডারেশন তাদের প্রাথমিক নির্বাচন করে। এবার চুরান্ত বাছাই করে তাদের জাতীয় মহিলা কাবাডি দলে অন্তঃভুক্ত করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন।
উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রিটন চাকমা জানান, দুর্গম পাহাড়ের চার কিশোরী জাতীয় কাবাডি দলে খেলার সুযোগ পেয়েছে সত্যি গর্বের। উপজেলা পরিষদ থেকে তাদের সহযোগীতা সর্বময় অব্যহত রাখা হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বৈষম্য কমাতে নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য পেনশন ব্যবস্থা চালুর পরামর্শ দিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর আতিউর রহমান। এটা করা হলে বৈষম্য কমবে বলে মনে করেন?