মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০১৮, ০১:৪৮:৪১

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলাঃ আসামি পক্ষের অপ্রয়োজনীয় বক্তব্যে আদালত বিরক্ত

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলাঃ আসামি পক্ষের অপ্রয়োজনীয় বক্তব্যে আদালত বিরক্ত

ডেস্ক রিপোর্টঃ-২০০৪ সালের ২১ আগস্ট রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে গ্রেনেড হামলা মামলায় আসামিপক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন অব্যাহত রয়েছে। বৃহস্পতিবার ছিল মামলার যুক্তিতর্কের ৩০তম দিন। এদিন আসামি মুন্সি মুহিবুল্লাহ ওরফে অভির পক্ষে তার আইনজীবী সাইফুর রশিদ সবুজ দ্বিতীয় দিনের মতো যুক্তিতর্ক পেশ করেন। তার যুক্তিতর্ক পেশ অসমাপ্ত রয়েছে। এ আইনজীবী তার মক্কেলের পক্ষে যুক্তিতর্কে বিভিন্ন অপ্রয়োজনীয় বক্তব্য দেয়ায় আদালত বিরক্তি প্রকাশ করে। এ সময় আদালত যুক্তিতর্কে আসামির জন্য প্রাসঙ্গিক হয়-এমন বক্তব্য ও আইনি পয়েন্টের আলোকে শুনানি করতে আইনজীবীকে পরামর্শ দেয়।
রাজধানীর পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের পাশে স্থাপিত ঢাকার ১ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিনের আদালতে এ মামলার বিচার চলছে। মামলার পরবর্তী তারিখ ধার্য করা হয়েছে ১৫, ১৬ ও ১৭ জানুয়ারি।
অপরদিকে আসামি আবদুস সালাম পিন্টুকে আদালতে হাজির করা ছাড়া মামলার কার্যক্রম অব্যাহত রাখা এবং হাসপাতালে তার উন্নত চিকিৎসার জন্য নির্দেশনা চেয়ে আবেদন করা হয়। আদালত শুনানি শেষে কারাবন্দি আসামির হাজির ছাড়া মামলার কার্যক্রম অব্যাহত রাখার আবেদন নাকচ করে দেয়।
এ সময় আদালত বলে- কারাবন্দি আসামির হাজির ছাড়া মামলার কার্যক্রম অব্যাহত রাখার বিধান বিদ্যমান আইনে নেই। তবে আসামি পিন্টুর যথাযথ চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণে কারা কর্তৃপক্ষকে আদেশ দেয়া হবে বলে আদালত জানায়।
এর আগে চার কার্যদিবসে পলাতক আসামি মাওলানা লিটন ওরফে জুবায়েরের পক্ষে রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী আবদুল বাতেন, পলাতক আসামি মুফতি সফিকুর রহমানের পক্ষে আইনজীবী মাজহারুল কুদ্দুস, পলাতক আসামি  ইকবালের পক্ষে আইনজীবী মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম, পলাতক আসামি মাওলানা তাজউদ্দিনের পক্ষে আইনজীবী আশরাফুল আলম, পলাতক আসামি জাহাঙ্গির আলম বদরের পক্ষে আইনজীবী সাইদুল হক, রাতুল আহমদ বাবুর পক্ষে অ্যাডভোকেট মশিউর রহমান, মহিবুল মোত্তাকিনের পক্ষে এডভোকেট হালিমা আক্তার, হানিফ পরিবহনের মালিক মো. হানিফের পক্ষে আইনজীবী চৈতন্য চন্দ্র হালদার, পলাতক খলিলের পক্ষে অ্যাডভোকেট খলিলুর রহমান খান, বিএনপি নেতা সাবেক সংসদ সদস্য শাহ মোফাজ্জল হোসেন কায়কোবাদের পক্ষে এডভোকেট আশরাফ-উল আলম, বিএনপি নেতা পলাতক হারিছ চৌধুরীর পক্ষে অ্যাডভোকেট আবু তৈয়ব ও পলাতক আনিসুল মোরসালিনের পক্ষে অ্যাডভোকেট সাখাওয়াৎ হোসেন যুক্তিতর্ক পেশ শেষ করেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে চালু হওয়া ‘না’ ভোট একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ সংশোধনের উদ্যোগের মধ্যে পুনঃপ্রবর্তনের প্রস্তাব করেছে নাগরিক সংগঠন সুজন। আপনি কি তা সমর্থন করেন?