মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

শুক্রবার, ০৫ জানুয়ারী, ২০১৮, ০৬:৪৮:৩২

২০ বছর ধরে বিচারাধীন ১৯ জেল আপিল গ্রহণ করেছে হাইকোর্ট

২০ বছর ধরে বিচারাধীন ১৯ জেল আপিল গ্রহণ করেছে হাইকোর্ট

ডেস্ক রিপোর্টঃ-দাখিলের পর পেরিয়ে গেছে প্রায় ২০ বছর। শুনানি হয়নি ১৯ জেল আপিলের একটিরও। ফলে বিভিন্ন ফৌজদারি মামলায় যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের এসব জেল আপিলগুলো দীর্ঘদিন ধরে পড়েছিল হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায়। বিষয়টি নজরে আসায় বৃহস্পতিবার ওইসব জেল আপিল চূড়ান্ত শুনানির জন্য গ্রহণের আদেশ দিয়েছেন বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের ডিভিশন বেঞ্চ। একইসঙ্গে দ্রুততম সময়ের মধ্যে আপিলগুলো শুনানির জন্য এখতিয়ার সম্পন্ন বেঞ্চে পাঠাতে সংশ্লিষ্ট আপিল শাখাকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চের দৈনন্দিন কার্যতালিকার ১৩ থেকে ৩১ নম্বর আইটেমগুলো ছিলো জেল আপিলের। অ্যাডমিশনের (শুনানির জন্য গ্রহণ) জন্য এসব জেল আপিলগুলো কার্যতালিকায় অন্তর্ভুক্ত ছিল। এসব আপিলের মধ্যে ১৯৯৬ সালের ৭টি ও ৯৯ সালের ৫টি আপিল রয়েছে। পদ্ধতিগত ত্রুটির কারণে এসব আপিল শুনানি না হয়ে এতদিন শাখায় পড়েছিল।
এ প্রসঙ্গে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ফরহাদ হোসেন বলেন, বহুদিন পূর্বে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা সাজার রায়ের বিরুদ্ধে এসব জেল আপিল করেছিলেন। কিন্তু শুনানি হয়নি। হয়ত আপিল বিচারাধীন থাকাবস্থায় অনেক আসামি ইতমধ্যে মারাও গেছেন। তিনি বলেন, হাইকোর্ট আপিলগুলো চূড়ান্ত শুনানির জন্য গ্রহণ করেছে। এখন এখতিয়ার সম্পন্ন বেঞ্চে গেলেই এসব আপিলের ওপর শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

  ভ্রাম্যমাণ আদালতঃ আপিলের অনুমতি পেলো সরকার

  সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদ নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত আদেশ, নিষ্পত্তি হবে তৃতীয় বেঞ্চে

  ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলাঃ আসামি পক্ষের অপ্রয়োজনীয় বক্তব্যে আদালত বিরক্ত

  হাই কোর্টে আটকে গেল ফোর জি

  পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ আইন বাতিলে আপিল শুনানি ২৩ জানুয়ারি

  ভ্রাম্যমাণ আদালত বিষয়ে আপিল শুনানি ১৬ জানুয়ারি

  রোহিঙ্গা নারীকে বিয়েঃ রিট খারিজ ও জরিমানা

  ২০ বছর ধরে বিচারাধীন ১৯ জেল আপিল গ্রহণ করেছে হাইকোর্ট

  মেয়র সাক্কুকে আত্মসমর্পণে হাইকোর্টের নির্দেশ

  বিচারক শৃঙ্খলা বিধির গেজেট গ্রহণ করেছে আপিল বিভাগ

  খালেদা জিয়াসহ ৫৫ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

পুলিশের আইজিপি এ কে এম শহিদুল হক বলেছেন, ‘দেশকে জঙ্গি, মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত করতে হলে পুলিশের পাশাপাশি জনগণকে কাজ করতে হবে।’ আপনিও কি তাই মনে করেন?