মঙ্গলবার, ১৭ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ০৪ জানুয়ারী, ২০১৮, ০৭:৫৬:৪৭

মেয়র সাক্কুকে আত্মসমর্পণে হাইকোর্টের নির্দেশ

মেয়র সাক্কুকে আত্মসমর্পণে হাইকোর্টের নির্দেশ

ডেস্ক রিপোর্টঃ-কুমিল্লার সিটি মেয়র মনিরুল হক সাক্কুকে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা দুর্নীতির মামলায় বিশেষ আদালতের অব্যাহতির আদেশ কেন অবৈধ হবে না- তা জানতে চেয়ে আজ রুল জারি করেছে হাইকোর্ট। বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের একটি ডিভিশন বেঞ্চ আজ এ আদেশ দেয়।
দুদকের আইনজীবী খুরশিদ আলম খান এ কথা জানান। তিনি বলেন ,এ মামলায় তাকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি বিচারিক আদালতকে সাক্কুকে জামিন দিতে বলা হয়েছে। অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপনের অভিযোগে ২০০৮ সালের ৭ জানুয়ারি সাক্কুর বিরুদ্ধে ঢাকার রমনা থানায় মামলা করেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সহকারী পরিচালক শাহীন আরা মমতাজ। গত বছরের ১৮ এপ্রিল মামলার অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে সাক্কুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন ঢাকার সিনিয়র স্পেশাল জজ কামরুল হোসেন মোল্লা। এরপর আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন সাক্কু।
পরে গত ২২ নভেম্বর অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তথ্য গোপনের মামলা থেকে কুমিল্লা সিটি মেয়র ও বিএনপি নেতা মনিরুল হক সাক্কুকে অব্যাহতি দেন ঢাকার আট নম্বর বিশেষ জজ আদালত। বিচারক শামীম আহম্মদ এ আদেশ দেন। এরপর উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত সাক্কুকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেন।
বিচারিক আদালতের সেই আদেশের বিরুদ্ধে দুদকের এক আবেদনের প্রেক্ষিতে আজ হাইকোর্ট রুল জারিসহ সাক্কুকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন।

এই বিভাগের আরও খবর

  অরফানেজ ট্রাস্ট মামলা: খালেদা জিয়ার আপিল শুনানি বৃহস্পতিবার

  খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি ৩১ জুলাই

  চ্যারিটেবল মামলায় ১৭ জুলাই পর্যন্ত খালেদা জিয়ার জামিন

  নিজেদের ভুল ঢাকতে ধর্মঘট ডাকা অন্যায়-হাইকোর্ট

  অরফানেজ ট্রাস্ট মামলাঃ খালেদা জিয়ার আপিল শুনানি পেছালো

  দুই মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন নামঞ্জুর

  খালেদা জিয়ার আপিল শুনানি ৮ জুলাই

  নড়াইলে বেগম জিয়ার জামিন আবেদন শুনানী শেষ, আদেশ ১৭ জুলাই

  কুমিল্লার এক মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিতই থাকছে

  সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনা মানছেন না নিম্ন আদালতের বিচারকরা

  খালেদা জিয়ার সাজা বাড়ানোর আবেদনের শুনানি মঙ্গলবার

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?