মঙ্গলবার, ১৭ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ০৪ জানুয়ারী, ২০১৮, ০৫:২৮:১১

বিচারক শৃঙ্খলা বিধির গেজেট গ্রহণ করেছে আপিল বিভাগ

বিচারক শৃঙ্খলা বিধির গেজেট গ্রহণ করেছে আপিল বিভাগ

ডেস্ক রিপোর্টঃ-নিম্ন আদালতের বিচারকদের চাকরির শৃঙ্খলা-সংক্রান্ত বিধিমালার গেজেট গ্রহণ করে আদেশ দিয়েছে সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞার নেতৃত্বে পাঁচ বিচারপতির আপিল বিভাগ বেঞ্চ বুধবার এ আদেশ দেয়। রাষ্ট্রপক্ষে আদালতে উপস্থিত ছিলেন এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।
গত ১১ ডিসেম্বর সরকার বিচারকদের চাকরিবিধির গেজেটটি প্রকাশ করে। পরে তা এফিডেভিট আকারে আপিল বিভাগে জমা দেয় রাষ্ট্রপক্ষ। আপিল বিভাগের আদেশে আজ বলা হয়, সুপ্রিমকোর্টের সুপ্রিমেসি রেখে সরকার অধঃস্তন আদালতের যে শৃঙ্খলা ও আচরণ বিধি প্রকাশ করেছে, তা গ্রহণ করেছে আপিল বিভাগ। তবে মাসদার হোসেন মামলার রায়ের পর্যবেক্ষণগুলো চলমান রেখেছে আপিল বিভাগ।
মাসদার হোসেন মামলায় ১৯৯৯ সালের ২ ডিসেম্বর সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ নির্বাহী বিভাগ থেকে বিচার বিভাগকে আলাদা করতে ঐতিহাসিক এক রায় দেয়। রায়ে জুডিশিয়াল সার্ভিসকে স্বতন্ত্র সার্ভিস ঘোষণা করা হয়। বিচার বিভাগকে নির্বাহী বিভাগ থেকে আলাদা করার জন্য সরকারকে ১২ দফা নির্দেশনা দেয়া হয় রায়ে। ওই রায়ের আলোকে ২০০৭ সালের ১ নভেম্বর নির্বাহী বিভাগ থেকে আলাদা হয়ে বিচার বিভাগের কার্যক্রম শুরু হয়। রায়ের নির্দেশনার অনুযায়ি গত বছরের ৭ মে আইন মন্ত্রণালয় নিম্ন আদালতের বিচারকদের চাকরির শৃংখলা সংক্রান্ত বিধিমালার একটি খসড়া প্রস্তত করে সুপ্রিমকোর্টে পাঠায়। খসড়াটি ১৯৮৫ সালের সরকারি কর্মচারী (শৃংখলা ও আপিল) বিধিমালার অনুরূপ হওয়ায় তা মাসদার হোসেন মামলার রায়ের পরিপন্থি বলে জানায় আপিল বিভাগ। পরে অধস্তন আদালতের বিচারকদের চাকরির শৃংখলা ও আচরণ সংক্রান্ত বিধিমালার সংশোধন করে গেজেট প্রকাশে নির্দেশ দেয় আপিল বিভাগ। তা প্রকাশে ইতোমধ্যে কয়েকদফা সময়ও নেয় রাষ্ট্রপক্ষ।
এরই মধ্যে আবারো গত ২৭ জুলাই বিধিমালার একটি খসড়া আইনমন্ত্রী আনিসুল হক আপিল বিভাগে দাখিল করে। পরে খসড়াটি বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে আদালত। এর প্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে বসার আহ্বান জানান প্রধান বিচারপতি। এ আহ্বানের প্রেক্ষিতে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি ও আপিল বিভাগের বিচারপতিদের সঙ্গে গত ১৬ নভেম্বর রাতে আইনমন্ত্রীর একটি বৈঠক অনুষ্টিত হয়েছে। সে বৈঠকে নেয়া সিদ্ধান্তের আলোকে অধস্তন আদালতের বিচারকদের চাকরির শৃংখলা বিধিমালার গেজেট প্রকাশ করা হয়। বাসস।

এই বিভাগের আরও খবর

  অরফানেজ ট্রাস্ট মামলা: খালেদা জিয়ার আপিল শুনানি বৃহস্পতিবার

  খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি ৩১ জুলাই

  চ্যারিটেবল মামলায় ১৭ জুলাই পর্যন্ত খালেদা জিয়ার জামিন

  নিজেদের ভুল ঢাকতে ধর্মঘট ডাকা অন্যায়-হাইকোর্ট

  অরফানেজ ট্রাস্ট মামলাঃ খালেদা জিয়ার আপিল শুনানি পেছালো

  দুই মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন নামঞ্জুর

  খালেদা জিয়ার আপিল শুনানি ৮ জুলাই

  নড়াইলে বেগম জিয়ার জামিন আবেদন শুনানী শেষ, আদেশ ১৭ জুলাই

  কুমিল্লার এক মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিতই থাকছে

  সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনা মানছেন না নিম্ন আদালতের বিচারকরা

  খালেদা জিয়ার সাজা বাড়ানোর আবেদনের শুনানি মঙ্গলবার

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে কাজ হচ্ছে, এখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। বাস্তবে তা ঘটবে বলে মনে করেন?