মঙ্গলবার, ২২ জুন ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ৩১ মে, ২০২১, ০৬:৪৬:৫৩

পাহাড়ে হত্যাকান্ডের বিচারের দাবীতে বান্দরবানে মানববন্ধন

পাহাড়ে হত্যাকান্ডের বিচারের দাবীতে বান্দরবানে মানববন্ধন

অনলাইন ডেস্ক: ভূষণছড়ায় গণহত্যাথসহ পাহাড়ে সাধারণ মানুষকে নির্বিচারে হত্যার বিচারের দাবীতে বান্দরবানে মানববন্ধন করেছে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ। আজ সোমবার (৩১মে) সকালে বান্দরবান প্রেসক্লাবের সামনে এ কর্মসূচী পালিত হয়। ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচীতে বান্দরবান সদরের বিভিন্ন এলাকার শতাধিক নারী-পুরুষ অংশ নেন। ‘ভূষণছড়ায় গণহত্যাথ দিবসে খুনিদের বিচারের দাবীতে আয়োজিত এই মানববন্ধনে জেলা জনস্বাস্থ্য বিভাগের অনিয়ম দুর্নীতি তদন্ত করে সাধারণ মানুষকে সুপেয় পানির ব্যবস্থা করারও দাবী জানানো হয়।

এসময় পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ বান্দরবান জেলা সভাপতি কাজী মুজিবুর রহমান বলেছেন- ‘ইউএনডিপি ও ইউএন মিশন পাহাড় নিষে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। তাদের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে দেশের কিছু ষড়যন্ত্রকারীথ। তারা সবসময় পহাড় ও বাঙ্গালীদের নিয়ে ষড়যন্ত্র করে।

তিনি আরো বলেন- ‘আমাদের আন্দোলন বৈষম্যের বিরুদ্ধেথ। বাংলাদেশে জাতির পিতার বিচার থেকে শুরু করে, যুদ্বাপরাধসহ অনেক আলোচিত ঘটনার বিচার হয়েছে। কিন্তু হাজার হাজার বাঙ্গালীর খুনি সন্তু লারমার বিচার হয়নি। কাজী মুজিব আরো বলেন- দেশের ৬৩জেলা সংবিধানের মাধ্যমে চললেও পার্বত্য তিন জেলায় সেই ২শ ২১ বছর আগের বৃটিশ আইনে চলছে। এই হিলট্র্যাক ম্যানুয়েল অনতিবিলম্বে বাতিল করতে হবে। রাজা প্রথা ও পার্বত্য চুক্তির সাংঘর্ষিক ধারা বাতিল করার জন্য প্রধানমন্ত্রী ও পার্বত্যমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানান তিনি। এসময় তিনি পার্বত্য উন্নয়ন বোর্ড ও জেলা পরিষদে বাঙ্গালীদের নির্বাচনে সুযোগ দেওয়ারও আহ্বান জানান।

বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক এই নেতা তাঁর বক্তব্যে আরো বলেন- জনস্বাস্থ্য বিভাগে পার্বত্যমন্ত্রী শত শত কোটি টাকা বরাদ্দ দিচ্ছেন মানুষের পানির ব্যবস্থার জন্য। কিন্তু একটি রাজনৈতিক পরিবার এই বিভাগে লুটপাট করছে দাবী করে সরকারী ওই প্রতিষ্ঠানের দিকে দৃষ্টি দেওয়ার জন্য পার্বত্যমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানান।

জেলা কমিটির সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অবসরপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ তারু মিয়ার সভাপতিত্বে মানববন্ধনে অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন- পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের জেলা কমিটির সহ-সভাপতি সাংবাদিক মোহাম্মদ রুহুল আমিন, সাধারন সম্পাদক মোঃ নাছির উদ্দীন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ নুরুল আফসার, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ মিজান, পৌর সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ এরশাদ চৌধুরী, যুগ্ন সম্পাদক মোঃ শাহ জালাল। এসময় পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের আয়োজিত মানববন্ধনে একাত্বতা প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন সাবেক ছাত্রনেতা মোহাম্মদ হোসেন সম্রাট'সহ অনেকে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেছেন, পুলিশের ওপর নির্বাচন কমিশনের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। আপনিও কি তা-ই মনে করেন?